বামনায় ৫০পিচ ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ৩ / পুলিশের বিরুদ্ধে বিক্রেতাকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত: ৭:৫১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৩, ২০২০

বামনায় ৫০পিচ ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ৩ / পুলিশের বিরুদ্ধে বিক্রেতাকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ

বরগুনা প্রতিনিধি : বরগুনার বামনা উপজেলার নিজ আমতলী গ্রামে অভিযান চালিয়ে এক মাদক বিক্রেতা ও দুই সেবনকারীকে ৫০ পিচ ইয়াবাসহ আটক করে বামনা থানা পুলিশ। আটক দুই জনের অভিযোগ ঘটনাস্থলেই মূল বিক্রেতা মো. সানিকে ছেড়ে দেয় অভিযান পরিচালনাকারী পুলিশের এসআই মো. হুমায়ুন। সানি বামনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্টোর কিপার ও পশ্চিম সফিপুর গ্রামের মো. আ. খালেকের ছোট ছেলে। আটককৃত ওই দুই মাদকসেবীরা হলেন বামনা উপজেলার ঢুষখালী গ্রামের সুলতান মিয়ার ছেলে মো. শাহীন ওরফে চায়না শাহীন (২১) ও একই গ্রামের মো. হারুন খন্দকারের ছেলে মো. মিলন খন্দকার (২০)। শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) দুপুরে আটককৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা নিয়ে বরগুনা কোর্টে পাঠানো হয়েছে।
আটককৃত মো. শাহীন হোসেন বামনা থানা হাজতে বসে সাংবাদিকদের বলেন, গত বৃহস্পতিবার রাতে মাদক বিক্রেতা মো. সানির কাছ থেকে আমি ও আমার বন্ধু মিলন দুজনে ইয়াবা নিতে নিজ আমতলীতে যাই। এসআই মো. হুমায়ুন স্যার আমাদের তিনজনকে হাতে নাতে আটক করে। পুলিশ আমার দেহ তল্লাশী করে আমার কাছে ইয়াবা পেলেও। আমার সাথের বন্ধুটির কাছে তখন কিছুই পায়নি। তবে তারা মূল বিক্রেতা সানিকে তল্লাশী করে কিছু না পেয়ে ঘটনাস্থলেই তাকে ছেড়ে দিয়েছে। আমাকে আর আমার বন্ধুকে গ্রেপ্তার করে থানায় এনেছে। তার দাবী পুলিশ সানির কাছে কোন মাদক না পাওয়ায় তাকে যেমন ছেড়ে দিয়েছে তাহলে তার বন্ধু মিলনকে কেন তারা ছাড়লো না।
এ বিষয়ে বামনা থানার এসআই হুমায়ুন জানায়, আমরা গোপন সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছাই। আমাদের দেখে সবাই দৌড়ে পালাতে চেষ্টা করে। তখন আমরা দুজনকে আটক করতে সক্ষম হই। বাকি একজন পালিয়ে যায়।
বামনা থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ইয়াবাসহ আটক দুইজনের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা নিয়ে বরগুনা কোর্টে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ