পিরোজপুরে শিক্ষককে হত্যার দায়ে ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত: ৮:৩৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০২১

পিরোজপুরে শিক্ষককে হত্যার দায়ে ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

পিরোজপুরের নাজিরপুরে স্কুলশিক্ষক সমীরন মজুমদারকে (৩০) হত্যার দায়ে ৩ জনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টায় পিরোজপুর জেলা ও দায়রা জজ মোহা. মহিদুজ্জামান এ আদেশ দেন।
একই সঙ্গে প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও নিহত সমীরনের মজুমদারের স্ত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে আহত করার অভিযোগে ওই ৩ জনের প্রত্যেককে ১০ বছর করে কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। মামলার অন্য ৫ আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।
দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- উপজেলার মাটিভাঙ্গা ইউনিয়নের পশ্চিম বানিয়ারী গ্রামের চিত্তরঞ্জন রায়ের ছেলে দিপংকর রায় (৩০), একই গ্রামের মৃত দ্বিন মোহাম্মাদ শেখের ছেলে নুর ইসলাম ওরফে নুরু শেখ (৩০) এবং বজলুর রহমান শেখের ছেলে খোকন শেখ (২৪)। রায়ের সময় দিপংকর রায় ছাড়া সকলেই আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালের ২৩ মার্চ রাত ২টার দিকে উপজেলার পশ্চিম বানিয়ারী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সমীরন মজুমদারের বাড়ির সিঁদ কেটে ঘরে ঢুকে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ সময় নিহত সমীরনের স্ত্রী তার স্বামীকে বাঁচাকে এগিলে এলে তাকেও হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে আহত করা হয়। এ ঘটনায় নিহত সমিরন মজুমদারের স্ত্রী স্বপ্না বসু বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে থানায় হত্যামামলা দায়ের করেন। পুলিশ ওই হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে উপজেলার মাটিভাঙ্গা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দিপংকর রায় ও মো. খোকন শেখকে গ্রেপ্তার করে।
মামলায় সরকারি পক্ষে আইনজীবী ছিলেন পিপি খান মো. আলাউদ্দিন এবং আসামি পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট ওবায়দুল কবির বাদল ও মো. দেলোয়ার হোসেন।
নিহত সমীরন মজুমদারের মা নিহার কনা মজুমদার রায় ঘোষণার পর বলেন, আমি রায়ে সন্তুষ্ট। এ হত্যার সঙ্গে আরও কেউ জড়িত থাকলে সৃষ্টিকর্তা তাদের বিচার করবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ