মেজিস্টেটের বিচাররিক ক্ষমতা প্রত্যাহার ॥ সাবেক ওসিসহ ৪ পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ

প্রকাশিত: ৭:৩৬ অপরাহ্ণ, জুন ১৩, ২০২১

মেজিস্টেটের বিচাররিক ক্ষমতা প্রত্যাহার   ॥ সাবেক ওসিসহ ৪ পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ

শিশু ধর্ষণ মামলায় ৪ শিশুকে গ্রেপ্তারের অভিযোগে বরিশালের বাকেরগঞ্জ থানার সাবেক ওসিসহ ৪ পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে, সংশ্লিষ্ট সমাজসেবা কর্মকর্তার বিরুদ্ধেও। এছাড়া কেড়ে নেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট বিচারকের ফৌজদারি ক্ষমতা। গত বছরের ৮ অক্টোবর রাতে কোর্ট বসিয়ে ৪ শিশুকে মুক্তির আদেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।
৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ৮ থেকে ৯ বছরের ৪ শিশু। প্রিজন ভ্যানে তোলার সময় তাদের বুকফাটা কান্না এবং কারাগারে পাঠানো নিয়ে প্রতিবেদন প্রচার করে সময় সংবাদ।
এ প্রতিবেদন দেখে রাতেই বসে উচ্চ আদালত। আদেশ দেওয়া হয় দ্রুত মুক্তির। পরদিন ৯ অক্টোবর শিশুদের ফিরিয়ে দেওয়া হয় মায়ের কোলে। কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয় বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশকে। জেলে পাঠানো হয় বিচারককে। তারাও ভুল স্বীকার করে উচ্চ আদালতে ক্ষমা চান।
আজ রোববার (১৩ জুন) এ মামলার চূড়ান্ত রায় দিলেন হাইকোর্ট। রায়ে বাকেরগঞ্জ থানার ওসিসহ ৪ পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইজিপিকে নিদের্শ দিয়েছেন আদালত। গাফিলতির জন্য ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে সমাজসেবা কর্মকর্তার বিরুদ্ধেও।
হাইকোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট জামিউল হক ফয়সাল সাংবাদিকদের বলেন, বরিশালের বাকেরগঞ্জের সাবেক ওসি আবুল কালামসহ ভিডিওতে যে পুলিশ সদস্যকে দেখা গেছে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে পুলিশ মহাপরিদর্শককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে সারা দেশে পুলিশকে বিদ্যমান শিশু আইনের প্রতিপালনীয় বিষয়গুলো অবহিত করতেও আইজিপিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
শিশু আসামিদের বয়স যাচাই না করেই তাদের কারাগারের পাঠানোর অভিযোগে জেলার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এনায়েত উল্লাহর বিচারিক ক্ষমতা খর্ব করার আদেশ দেওয়া হয়েছে।
এব্যাপারে মামলা সংশ্লিষ্ট্য আইনজীবী অ্যাডভোকেট জামিউল হক ফয়সাল বলেন, সেদিন যিনি বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট ছিলেন তার বিচারিক ক্ষমতা খর্ব করতে সুপ্রিম কোর্টের পরামর্শক্রমে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত বছরের ৪ অক্টোবর শিশু ধর্ষণের অভিযোগে বাবা বাদী হয়ে অপর ৪ শিশুর বিরুদ্ধে মামলাটি করা হয়। বর্তমানে মামলাটির কার্যক্রম হাইকোর্টের নির্দেশে স্থগিত রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ