স্বরূপকাঠিতে যুবক খুন, সোনারগাঁও থেকে আসামি পিতা-পুত্র গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ৬:২০ অপরাহ্ণ, জুন ১০, ২০২২

স্বরূপকাঠিতে যুবক খুন, সোনারগাঁও থেকে আসামি পিতা-পুত্র গ্রেপ্তার

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে মোবাইল চুরিকে কেন্দ্র করে ফুফার লাঠির আঘাতে যুবক নাঈমের মৃত্যুর ঘটনায় দুই আসামি কাঞ্চন মিয়া (৬৫) ও তার ছেলে সাগরকে (২৩) গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। গত বুধবার রাতে নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁও এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে বৃহস্পতিবার স্বরূপকাঠি থানায় নেয়া হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোনারগাঁও থানা পুলিশের সহায়তায় অভিযুক্ত পিতা-পুত্রকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নেছারাবাদ (স্বরূপকাঠি) থানার এসআই পনির খান নিশ্চিত করেছেন।

আজ শুক্রবার সকালে তাদেরকে পিরোজপুর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
গত মঙ্গলবার দুপুরে একটি মোবাইল চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের বিন্না গ্রামের আব্দুল আলীমের ছেলে নাজমুল সিলাম নাঈমের সঙ্গে তার ফুপাতো ভাই সাগরের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ছেলে সাগরের পক্ষ নিয়ে তার পিতা কাঞ্চন নাঈমের মাথায় একটি কাঠের বাটলা দিয়ে আঘাত করেন। এতে নাঈম চিৎকার দিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। স্বজনরা তাকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বরিশাল শেবাচিমে চিকিৎসা শেষে অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।
ঘটনার পর থেকেই কাঞ্চন ও তার ছেলে সাগর পলাতক ছিলেন। এ ঘটনায় বুধবার রাতে নাঈমের মা ফারজানা বেগম বাদী হয়ে নেছারাবাদ (স্বরূপকাঠি) থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ময়নাতদন্ত শেষে বৃহস্পতিবার বিকেলে নাইমের লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। নিহত নাইমের ৮ মাসের একটি সন্তান রয়েছে।

নেছারাবাদ থানার ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন বলেন, ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই মামলার এজাহার নামীয় দুই আসামিকেই আমরা গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছি। আজ আসামীদের পিরোজপুর আদালতে প্রেরণ করা হলে সেখানে তারা স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। বিজ্ঞ আদালত আসামিদেরকে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ