একটি জাতির উন্নতি নির্ভর করে সে দেশের নাগরিকদের ওপর- প্রতিমন্তী কর্ণেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম

প্রকাশিত: ৫:২৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০২০

একটি জাতির উন্নতি নির্ভর করে সে দেশের নাগরিকদের ওপর- প্রতিমন্তী কর্ণেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম

পানিসম্পদ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও বরিশাল জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি কর্ণেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম-এমপি বলেছেন, একটি অসুস্থ জাতি দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে না। একটি জাতির উন্নতি নির্ভর করে সে দেশের নাগরিকদের ওপর। সে দেশের নাগরিক যদি সুস্থ-সবল হয় তাহলেই সম্ভব হয় উন্নতি সাধন করা। বঙ্গবন্ধু একটি সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন। তার কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষে এগিয়ে যাচ্ছে। আর সেই সোনার বাংলা গড়তে হলে আমাদেরকেও শারিরীকভাবে সুস্থ থাকতে হবে। শারিরীক সুস্থ থাকতে হলে আমাদেরকে খেলাধুলা করতে হবে।

শনিবার (১৪ নভেম্বর) সকালে বরিশাল নগরীর শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড কর্তৃক প্রদত্ত রোলার হস্তান্তর এবং সরকারির শিশু পরিবারে ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

কিশোর-কিশোরীদের খেলাধুরার প্রতি আগ্রহী হওয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, খেলার দিকে যারা মনযোগী তারা কিন্তু খারাপ কাজের দিকে মনযোগী হয়না। তারা খারাপ কাজ থেকে দূরে থাকে। যারা স্বাস্থ্য সচতেন তারা কিন্তু মাদকের দিকে আকৃষ্ট হয় না। খেলাধুলার সাথে সাথে লেখা-পড়ার দিকে মনযোগী হলেই দেশ সোনার বাংলা হতে পারবে।

তিনি বলেন, আমি অনেক সময় চেষ্টা করি চাকুরি দেয়ার জন্য। কিন্তু সাধারণ একটা লিখিত পরীক্ষায় বেশিরভাগ ছেলে পাশ করতে পারে না। পরীক্ষার ধরণ পরিবর্তন করলেও তারা লিখিত পরীক্ষায় পাশ করতে পারে না। একটা পরীক্ষার্থী যদি লিখিত পরীক্ষায় পাশ না করতে পারে তাহলে কিভাবে সুপারিশ করে চাকুরি দেয়া সম্ভব। নিজের প্রস্তুতি নিজেকে নিজের নিতে হবে। তোমার ভালো তোমাকে দেখতে হবে। যদি নিজের ভিত মজবুতভাবে গড়তে না পারলে হলে মন্ত্রী কোন উপকার করতে পারবে না। নূন্যতম লেখা-পড়ার জ্ঞান না থাকলে পদ্মাসেতু-পায়রা বন্দর হওয়ার পর বরিশালের শিল্প কারখানা হলেও সেখানে তোমারা চাকুরি করতে পারবে না। বাহিরের লোক এসে চাকুরি করবে। আর সন্তানের লেখাপড়ার দিকে অভিভাবকদেরও খেয়াল রাখতে হবে। তাদের সময় দিতে হবে।
তিনি বলেন, মুজিব বর্ষে যে টি টোয়েন্টি খেলা হবে, সেখানে বরিশালের একটি টিম দেয়া হয়েছে। সে টিমের লগো উদ্বোধন আজ হবে ঢাকাতে। যার একটি অনুষ্ঠান আমরা বরিশালেও করবো। বরিশালের নামে টিম করায় আমি ব্যক্তিগতভাবে অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানাই উদ্যোক্তা সেই শিল্পপতিকে। ওই খেলায় যারা অংশগ্রহন করছেন তাদের সাপোর্ট দেয়ার পাশাপাশি সবাই খেলা দেখবেন। কারন এটারও প্রয়োজন আছে। আজ বরিশাল থেকে ক্রিকেট টিম হয়েছে কিন্তু আমি চাই বরিশাল থেকে ভালো ফুটবল টিম, ভালো মানের ভলিভল, হা-ডু-ডু টিম হোক।
বক্তব্যে শেষে মহামারি করোনার বিষয়ে সকলকে সচেতন থাকার জন্য আহবান জানিয়ে সকল বয়সী মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানান প্রতিমন্ত্রী।
উল্লেখ্য বাংলাদেশ ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের পক্ষ থেকে একটি রোলার দেয়া হয়েছে এবং সরকারি শিশু পরিবারের সদস্যদের জন্য ফরচুন সু ফ্যাক্টরীর পক্ষ থেকে খেলার সামগ্রী প্রদান করা হয়। এজন্য প্রতিমন্ত্রী ফরচুন সু ফ্যাক্টরীর মালিককে ধন্যবাদ জানান।
অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার ড. অমিতাভ সরকার(অতিরিক্ত সচিব), বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান-বিপিএম(বার), জেলার পুলিশ সুপার মোঃ সাইফুল ইসলাম-বিপিএম(বার), বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক আলমগীর খান আলো।
উপস্থিত ছিলেন মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহামুদুল হক খান মামুন, জেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি জোবায়ের আব্দুল্লাহ জিন্নাহ, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি জসিম উদ্দিন ও মহানগর ছাত্রলীগের নেতা মাহাদ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ