৯ম শ্রেণীতে ভর্তি হওয়া হাজার হাজার শিক্ষার্থী বিপাকে

প্রকাশিত: ৮:১৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২১

৯ম শ্রেণীতে ভর্তি হওয়া হাজার হাজার  শিক্ষার্থী বিপাকে

জিয়া শাহীন ॥ অটোপাস নিয়ে তালগোল পাকিয়ে ফেলছে শিক্ষা বোর্ডগুলো। জানুয়ারীর শুরুতেই প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের জেএসসির সনদ ছাড়াই ভর্তি করা হয়ে গেছে ৯ম শ্রেণীতে। ঠিক এসময়ে দেশের শিক্ষা বোর্ডগুলো সিদ্ধান্ত নিয়েছে ২০২০ সালের ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের জেএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ করতে হবে। সবার আগে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড জেএসসির ফরম পূরণের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। ফরম পূরণের জন্য ২১ জানুয়ারী থেকে ৩১ জানুয়ারী পর্যন্ত সময় বেধে দেয়া হয়েছে। বরিশাল শিক্ষা বোর্ড ২/১ দিনের মধ্যে তাদের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে বলে জানিয়েছেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অরুণ কুমার গাইন।
উচ্চ মাধ্যমিকে অটো পাস নিয়ে জটিলতার মধ্যেই কোন নির্দেশনা না থাকায় দেশের সব মাধ্যমিক স্কুলে সনদ ছাড়াই ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের ৯ম শ্রেণীতে ভর্তি করে নেয়। অনেক শিক্ষার্থী স্কুল পরিবর্তনের ক্ষেত্রে শুধু মাত্র প্রত্যায়নপত্র ব্যবহার করছে। শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, এতে জটিলতার সৃুষ্টি হয়েছে। প্রথমত অটো পাস হলেও তাদের সনদ দিতে হবে। সেই সনদের জন্য বোর্ডগুলোর বিপুল অর্থ প্রয়োজন। সেটা মেটাতে ফরম পূরণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয় আন্ত শিক্ষা বোর্ডের সভায়। এ জন্য মন্ত্রনালয়ের অনুমতি চাওয়া হয়েছিল। দ্বিতীয়ত, কোন সনদ ছাড়া ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের ৯ম শ্রেণীতে ভর্তি করায় অন্য জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে। শিক্ষার্থী আদৌ ৮ম শ্রেণীতে পড়েছে কিনা, জেএসসির নিবন্ধন আছে কিনা তা যাচাই না করেই স্কুলগুলো ৯ম শ্রেণীতে ভর্তি করে নিচ্ছে। অটো পাসের সুযোগ নিয়ে ৭ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর কেউ কেউ ৯ম শ্রেণীতে কিংবা ৮ম শ্রেণীতে কোন কারনে ভর্তি এবং নিবন্ধন না করেই ৯ম শ্রেণীতে ভর্তি হচ্ছে কিছু শিক্ষার্থী। কিন্তু ৯ম শ্রেণীতে নিবন্ধনের জন্য ৮ম শ্রেণীর নিবন্ধন ও রোল নম্বর প্রয়োজন। তাই জেএসসিতে ফরম পূরণ করতেই হবে ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের- এমনটাই জানালেন বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অরুন কুমার গাইন। ঢাকা বোর্ড তাড়াহুড়ো করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলেও বরিশাল শিক্ষা বোর্ড ২/১দিন পরে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশকরবে বলে তিনি জানান।
এদিকে বিভিন্ন স্কুলে ৯ম শ্রেণীতে কোন প্রকার সনদ বা নিবন্ধন ছাড়া ভর্তি করা ৯ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী নিয়ে বিপাকে পড়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। ভর্তি করা এসব শিক্ষার্থীদের ভর্তি বাতিল হবে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। জানুয়ারীর আগেই ফরম পূরনের সিদ্ধান্ত বোর্ডগুলোর নেয়া উচিত ছিল বলে মনে করছেন শিক্ষক ও অভিভাবকবৃন্দ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ